কেচো খুজতে বেরিয়ে এলো সাপ, রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যা কে বানাতে চায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী (ভিডিও সহ)

রোহিঙ্গাদের বিপ্লবী নেতা কাশেম রাজার ছেলে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগ নেতা শাহ আলম চৌধুরী ওরফে রাজা শাহ আলমকে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অধিষ্ঠিত করতে আল্লাহ তায়ালার কাছে দোয়ায় আ’রজ জানিয়েছেন কুতুপালং

ক্যাম্পের শরণার্থীরা। রাজা শাহ আলম উখিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক হওয়ার খুশিতে রোহি’ঙ্গা ক্যাম্পের মসজিদে মসজিদে আয়োজিত খতমে কোরআন শেষে দোয়া মাহফিলে এ আরজ জানানো হয়। এমন একটি ভিডিও গতকাল সোমবার

রাতে প্রচার পাওয়ার পর কক্সবাজারজুড়ে স’মালোচনার ঝড় উঠেছে। অনেকে বলছেন, মানবিক আশ্রয় পাওয়া রো’হিঙ্গারা বাংলাদেশি নাগরিকত্ব বাগিয়ে নেয়া রো’হিঙ্গাদের সামনে রেখে এদেশে স্থায়ী হতে যে প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন তারই বহিঃপ্রকাশ এ দোয়ার উচ্চারণ। তাই কৌশলে বি’ত্ত বৈভবের

মালিক হয়ে বাংলাদেশি নাগরিকত্ব কব্জা করা রোহি’ঙ্গাদের রাজনৈতিক দল এবং ক্ষ’মতা থেকে দূরে রাখতে অভিমত বো’দ্ধা মহলের। সূত্রমতে, কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক অর্থ সম্পাদক ও বর্তমান কমিটির সহ-সভাপতি হোটেল ব্যবসায়ী শাহ আলম চৌধুরী ওরফে রাজা শাহ আলম সম্প্রতি উখিয়া

উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মনোনীত হয়েছেন। ইতোমধ্যে ৩৩ সদস্যের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটি গঠন করেছেন তিনি। রাজা শাহা আলম রো’হিঙ্গাদের বিপ্লবী নেতা কাশেম রাজার সন্তান। ৬০এর দশকে মিয়ানমার সরকারের চা’পের মুখে বাংলাদেশে পা’লিয়ে আসেন কাশেম রাজা। মিয়ানমার থেকে পা’লিয়ে

কক্সবাজারের উখিয়ার ইনানীর পাহাড়ি এলাকায় স্বপরিবারে আশ্রয় নেন তিনি। পরিবর্তীতে সেই এলাকাতেই বসতি স্থাপন করে ধীরে ধীরে সেখানে থিতু হন নি’পীড়িত রোহি’ঙ্গাদের বিপ্লবি এই নেতা। সেখানে জন্ম হয় কাশেম রাজার ৩ ছেলে ও ২ মেয়ের। আর কাশেম রাজার প্রথম সন্তান হলেন শাহা আলম চৌধুরী ওরফে রাজা শাহ আলম। ভিডিও দেখতে ক্লিক