মিশরের একটি হোটেল থেকে বাংলাদেশি-আমেরিকান তরুণীর লা’শ উ’দ্ধার

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক ও নিউজার্সির পরিচিত মুখ বিউটি এক্সপার্ট বাংলাদেশি-আমেরিকান তরুণী ফাতেমা খান খুকির ম’রদেহ মিশরের কায়রোর একটি হোটেল থেকে

উ’দ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। পাঁচদিন আগে খুকি ব্যক্তিগত ভ্রমণে কায়রো গিয়েছিলেন বলে জানা গেছে। সেখানে মঙ্গলবার( ২১ জুলাই) হোটেল কক্ষে তাঁকে মৃ’ত অবস্থায় উ’দ্ধার করে স্থানীয় পুলিশ।

মিশরের কায়রোর মার্কিন দূতাবাস খুকির বোনকে টেলিফোনে তাঁর মৃ’ত্যুর খবর জানায়। তবে এখন পর্যন্ত মৃ’ত্যুর কারণ জানা যায়নি। স্থানীয় পুলিশ ঘটনার ত’দন্তে নেমেছে।

এদিকে ফাতেমা খান খুকির মৃ’ত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তাঁর বান্ধবী জাতীয় পার্টির নেত্রী শাহজাদী নাহিনা নূর। শাহজাদী তাঁর ফেইসবুক পেইজে লিখেন, “আমাদের প্রিয় দোস্ত ফাতেমা খান খুকি আর নেই।

ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। কোভিড নাইনটিনে আক্রান্ত হয়ে নয়, সাত দিন আগে তাঁর লা”শ পাওয়া গেছে মিশরের একটি হোটেলে। এইমাত্র আমাকে এক বন্ধু বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।” 

শাহজাদী আরও লিখেন, গত সপ্তাহেই তাঁর জন্মদিন ছিল। আমি বাকরুদ্ধ। কে তাঁকে হ’ত্যা করলো কিংবা কিভাবে সে মা’রা গেল, তার কারণ কেউ জানে না। খুকি, কেন তুমি মিশর গিয়েছিলে? কেন?”

খুকির বান্ধবী নিউইয়র্কের টিভি উপস্থাপিকা শারমিনা সিরাজ সোনিয়া যুক্তরাষ্ট্রের একটি বাংলা গণমাধ্যম এনআরবি কানেক্টকে বলেন, ‘আমিও খবরটি পেয়েছি। আমি কোনোভাবেই বিষয়টি মেনে নিতে পারছি না। খুকি কেন মিশর গিয়েছিল, কারো সাথে গিয়েছিল কি-না, কিংবা কারো সাথে দেখা করতে গিয়েছিল কি-না তার কোনো কিছুই আমরা জানি না। পুরো বিষয়টি র’হস্যাবৃত।’ 

জানা গেছে, আনুমানিক ৪৪ বছর বয়সী ফাতেমা খান খুকি বিউটি এক্সপার্ট হিসেবে কাজ করতেন। থাকতেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউজার্সিতে।