সুখবর, শা’রীরিক ক্ষ’তি করার ‘শ’ক্তি হারাচ্ছে’ করোনাভাইরাস!

প্রা’ণঘাতী করোনাভাইরাসে বি’পর্যস্ত হয়ে পড়েছে গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের বি”ষাক্ত ছো’বলে ইতোমধ্যে (সোমবার সকাল ১০টা পর্যন্ত) বিশ্বব্যাপী আক্রান্ত হয়েছে ৬২ লাখ ৬৬ হাজার ৮৭৫ জন। এর মধ্যে মৃ’ত্যু হয়েছে ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৯৬০ জন।

প্রতি মুহূর্তে বাড়ছে এই আক্রান্ত ও মৃ’ত্যুর সংখ্যা।

যেন এই ভাইরাসের কাছে অ’সহায় হয়ে পড়েছে আধুনিক বিশ্ব।

সবচেয়ে বেশি ক্ষ’তিগ্রস্ত হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষ’মতাধর রাষ্ট্র আমেরিকা। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত ১৮ লাখ ৩৭ হাজার ১৭৩ জন। এর মধ্যে মৃ’ত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬ হাজার ১৯৫ জনের।

তবে এই অবস্থায় আশার কথা শোনালেন ইতালির একজন চিকিৎসা বিজ্ঞানী। তার দাবি, দিনে দিনে শারীরিক ক্ষ’তি করার শক্তি হারাচ্ছে করোনাভাইরাস।

মিলান শহরের সান রাফায়েল হাসপাতালের প্রধান চিকিৎসক আলবার্তো জাংরিলো বলছেন, ‘বা’স্তবতা হল ইতালিতে ভাইরাসটি ক্লিনিক্যালি আর নেই। এক অথবা দুই মাস আগে যে অবস্থা ছিল গত ১০ দিনে তা পরিমাণগত বিবেচনায় ক্ষু’দ্রাতিক্ষুদ্র পর্যায়ে চলে এসেছে। ’

ইতালির আরএআই টেলিভিশনকে দেওয়া সা’ক্ষাৎকারে রবিবার এসব কথা বলেন জাংরিলো।

ইতালির আরএআই টেলিভিশনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রবিবার এসব কথা বলেন জাংরিলো।

ইতালিতে মে মাসের শুরুতেও ভয়াবহ অবস্থা ছিল। কিন্তু শেষ দিকে পরিস্থিতি বেশ নিয়ন্ত্রণে সেখানে।

প্রক্রিয়াধীন থাকা ‘বৈজ্ঞানিক প্রমাণের’ কথা উল্লেখ করে জাংরিলো বলছেন, ‘ভাইরাসটি ইতালি থেকে চলে গেছে। যারা ইতালিয়ানদের দোটানায় ফেলছেন তাদের আমি এটি না করতে আহ্বান জানাতে চাই। ’

ইতালির আরও একজন ডাক্তার ভাইরাসটির দু’র্বল হওয়ার কথা জানিয়েছেন।

এএনএসএ  নিউজ এজেন্সিকে মাত্তিও বাসেটি নামের ওই চিকিৎসক বলেন, ‘দুই মাস আগে ভাইরাসের যে শক্তি ছিল এখন আর সেটি নেই। ’

তার দাবি, কোভিড-১৯ এখন পরিষ্কারভাবে ভিন্ন রো’গ!

ওয়ার্ল্ডওমিটারের সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী, ইতালিতে এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৩২ হাজার ৯৯৭ জন আক্রান্ত হওয়ার পাশাপাশি ৩৩ হাজার ৪১৫ জন মা’রা গেছেন। সূত্র: রয়টার্স