চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের ব্যাতিক্রমি উদ্যোগ,২০০ পরিবারকে খাদ্য সহায়তার মাধ্যমে উদযাপন করলেন নববর্ষ

করোনার প্রাদুর্ভাব যেভাবে দিন দিন বৃদ্ধি পাড়ছে, ঠিক তেমনি নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে একটা ভয়ানক পরিস্থিতি সৃষ্টি হচ্ছে। চট্টগ্রামে গত ১৪ই এপ্রিল নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের পাশে এসে দাড়ায় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ।

মহানগর ছাত্রলীগ নেতা সৌরভ ঘোষের উদ্দ্যোগে মোবাইল কলের মাধ্যমে পরিচয় গোপন রেখে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় নিম্ন-মধ্যবিত্তদের খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়। সেই মাধ্যমে প্রায় ২০০ নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের মাঝে ‘খাদ্যদ্রব্য ’ পৌছে দেয় চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগ। এই বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা সৌরভ ঘোষ বলেন,

‘আমরা গত ২৫ শে মার্চ হতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নির্দেশনা মেনে সাধারণ জনগণের জন্য নানা ধরনের ব্যতিক্রমী কাজ করে যাওয়ার চেষ্টা করছি। তারই ধারাবাহিকতায় আমি নগরীর নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের জন্য কিছুদিন আগে ফেসবুকে একটি স্টেটাস দিয়ে বলি এই মহামারির সময়ে যারা পরিস্তিতির শিকারে খাদ্য সংকটে আছে অথবা যারা সামাজিক অবস্তানের জন্য কারও থেকে কিছু চাইতে পারছে না তারা আমার সাথে যোগাযোগ করতে আমরা সবার অগোচরে তাদের সাহায্য করব যেখানে থাকবে না কোন ফটোসেশন।

এই স্ট্যাটাস ভাইরালের পর অনেকে নানাভাবে আমার সাথে যোগাযোগ করে আমিও সময় নিয়ে আমার বড়ভাই, বন্ধু ও অনুজদের সহায়তায় ১৪ এপ্রিল নববর্ষ তাদেরকে সহায়তার মাধ্যমে উদযাপন করি। গত কয়েকদিনে প্রায় ২০০এর মত কল পাই এবং নববর্ষের দিন এই ২০০ পরিবারকে সহায়তার মাধ্যমে আমরা এই মহামারিতেও নববর্ষ উদযাপন করি।

এই কার্যক্রমে ৮নং শুলোকবহর ওয়ার্ড যুবলীগের তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক বাদশা সোলাইমান ভাই আড়ালে থেকে আমাকে সর্বোচ্চ সহায়তা করেছে।তাছাড়াও আরাফাত রহমান,জুবায়ের হোসেন প্রত্যয়,ফাহিমুল ইসলাম ফাহিম,সাফায়েত আলম,ফাহাদ,আকিব,তানজিল মাহি,সাফাত কায়সার,উম্মেস বড়ুয়া, অর্নব গোস্বামী সহ অনেক ছাত্রলীগ নেতা আমাকে শারীরিক ও আর্থিক ভাবে সহায়তা করেছে।