ইরানের ৫২ স্থানে কঠোর হা’মলার হু’মকি ট্রাম্পের।

রিয়েল সিলেটঃ ইরানের ৫২ স্থানে কঠোর হা’মলার হু’মকি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, ইরান যদি আমেরিকানদের ওপর বা যুক্তরাষ্ট্রের কোনো সম্পদ লক্ষ্য করে হা’মলা চালায় তবে তেহরানের গুরত্বপূর্ণ ৫২ স্থানে ভ’য়াবহ হা’মলা চালানো হবে।

খবর আল জাজিরার। শুক্রবার ইরাকের রাজধানী বা’গদাদের আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে যুক্তরাষ্ট্রের এক হা’মলায় ইরানের কুর্দস বাহিনীর ক্ষমতাধর জেনারেল কাসেম সোলেইমানি এবং এক ইরাকি মিলিশিয়া প্রধান নি’হত হন।

ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইরান হা’মলা চালাতে পারে এমন আ’শঙ্কা থেকেই পা’ল্টা হু’মকি দিলেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সাম্প্রতিক সময়ে জেনারেল সোলেইমানিকে হ’ত্যার ঘ’টনায় ইরান ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে নতুন করে উ’ত্তেজনা শুরু হয়েছে।

শনিবার তার প্রথম জা’নাজা নামাজ সম্পন্ন হয়। তার জানাজার কয়েক ঘণ্টা পরেই বা’গদাদে কয়েকটি বি’স্ফোরণের ঘটনা ঘটে। রাজধানী বাগদাদে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে দুটি রকেট হাম’লার ঘটনা ঘটেছে।

অন্যদিকে বা’গদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোনে মার্কিন দূতাবাসের কাছে আ’ঘাত করেছে দুটি ম’র্টারের গো’লা। ইরাকি নিরাপত্তা সূত্র বলছে, এসব হা’মলায় কেউ হ’তাহত হয়নি। অপরদিকে ইরানের নেতারা কাসেম সোলেইমানির হ’ত্যার প্রতিশোধের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এমন পরিস্থিতিতে উ’ত্তেজনা কমানোর কোনো চেষ্টা না করে বরং হা’মলার হু’মকি দিয়ে টুইট করেছেন ট্রাম্প। এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প ইরানকে হু’মকি দিয়ে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র ইরানের ৫২ স্থানকে টার্গেট করেছে। এর মধ্যে কিছু ইরানের প্রথম সারির এবং খুবই গুরুত্বপূর্ণ স্থান।

এগুলো ইরানের সংস্কৃতি এবং ইরানিদের কাছে খুব গুরুত্বপূর্ণ। এসব স্থানে খুব দ্রুত ভ’য়াবহ হা’মলা চালানো হবে। ট্রাম্প বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আর কোনো হু’মকি চায় না।

তিনি আরও বলেছেন, ১৯৭৯ সালের নভেম্বরে তেহরানে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস থেকে ৫২ জন আমেরিকানকে জি’ম্মি করা হয়েছিল। তারা ৪৪৪ দিন ব’ন্দি ছিলেন। ওই ৫২ জনের কথা স্মরণ করেই ইরানের ৫২ স্থানকে টার্গেট করা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।