সিঙ্গাপুরে দক্ষিণ এশিয়ার প্রবাসীদের কনভেনশন অনুষ্ঠিত

সম্প্রতি সিঙ্গাপুরে আয়োজিত হলো দক্ষিণ এশিয়ার প্রবাসীদের কনভেনশন। ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অব সিঙ্গাপুরের গবেষণা প্রতিষ্ঠান-ইনস্টিউট অব সাউথ এশিয়ার স্টাডিজের উদ্যোগে গত ১৬-১৭ নভেম্বর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি কালচারাল সেন্টারে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সিঙ্গাপুরে অবস্থিত বাংলাদেশে হাইকমিশনসহ দক্ষিণ এশিয়ার পাঁচটি দেশের দূতাবাস সম্মেলনটির সহ-আয়োজক ছিল।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিঙ্গাপুরের জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ক সিনিয়র মন্ত্রী টিওচিহীন ‘ভাইব্রান্ট সাউথ এশিয়া-ইনোভেশন ডিঅস্পর’ বিষয়ে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এছাড়া, সামাজিক কর্মসূচী সমন্বয় বিষয়ক সিনিয়র মন্ত্রী থারমানশানমুগা রত্নম, জাতীয় উন্নয়ন ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী লরেন্স অং এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, অর্থ ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী ইন্দ্রাণী রাজাহ কনভেনশনের বিভিন্ন অধিবেশনে বক্তব্য রাখেন। কনভেনশনে দক্ষিণ এশিয়ার ভূ-রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, ক্ষমতায়ন, শিক্ষা, অবকাঠামো বিষয় সম্পর্কিত সাতটি প্যানেল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন দেশ হতে আগত বিশেষজ্ঞ, শিক্ষাবিদ, এনজিওকর্মী, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণ এসব আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ হতে আলোচক হিসেবে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুলহক, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা রাশেদা কে চৌধুরী এবং কসমস গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এনায়েতুল্লাহ খান উপস্থিত ছিলেন।বাংলাদেশের হাইকমিশনার মো. মোস্তাফিজুর রহমান সম্মেলনে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে কনভেনশনে অংশগ্রহণ করেন।বাংলাদেশের দারিদ্র্য বিমোচন, শিশু শিক্ষার হার বৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখা এবং এ বিশাল জনগোষ্ঠীকে উন্নয়নের কৌশলগত অংশীদার হিসেবে প্রতিষ্ঠায় অসামান্য অবদান রাখার জন্য ব্র্যাক এর প্রতিষ্ঠাতা বাংলাদেশি নাগরিক স্যার ফজলে হাসান আবেদকে সম্মেলনে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়।

সম্মেলনের আয়োজকরা ১৭ নভেম্বর দক্ষিণ এশিয়ার ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণে একটি সীমিত ওভারের ক্রিকেট টুর্নামেন্টের আয়োজন করে। ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল ও আবদুর রাজ্জাক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। সন্ধ্যায় স্থানীয় একটি হোটেলে খ্যাতিমান ভারতীয় ক্রিকেট তারকা আজহার উদ্দিন ও রাহুল দ্রাবিড়ের সঙ্গে একটি মতবিনিময় অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।