মার্চে ঢাকায় উপস্থিত থাকবেন সৌরভ গাঙ্গুলি

আগামী বছরের শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বড়ো আয়োজন করছে বিসিবি। মার্চে এশিয়া একাদশ-বিশ্ব একাদশের মধ্যে ম্যাচ হবে। সেই আয়োজনে ঢাকায় উপস্থিত থাকবেন সৌরভ গাঙ্গুলিও। গতকাল তিনি বলেছেন, ‘আমরা উনাকে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) উনার বাবার ছবি দিয়েছি; সোনায় মোড়ানো। জন্মশতবার্ষিকী নিয়ে তোমাদের অনেক বড়ো উত্সব হচ্ছে, আমি জানি। দুটো ম্যাচও হবে—বিশ্ব একাদশ ও এশিয়া একাদশের মধ্যে। আমি যাব, আমি অবশ্যই যাব।’

২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টে ভারতীয় দলের নেতৃত্বে ছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। তখন থেকেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সুসম্পর্ক গাঙ্গুলির। বিসিসিআইয়ের সভাপতি হয়েই গোলাপি বলে বাংলাদেশ-ভারত প্রথম টেস্টে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন শেখ হাসিনাকে। গাঙ্গুলির আমন্ত্রণ রক্ষা করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী। গতকাল ভারতের সাবেক এই অধিনায়ক বলেছেন, ‘আমার সঙ্গে অনেকদিন ধরেই উনার সম্পর্ক আছে এবং সেটি খুবই ভালো। ২০০০ সালে যখন ভারত-বাংলাদেশ টেস্ট ম্যাচ হয়, তখন প্রথম প্রধানমন্ত্রী হন, তখন থেকেই উনার সঙ্গে আমার ভালো সম্পর্ক।’

এই কথোপকথনে সৌরভ বাংলাদেশ দলের প্রতি সহানুভূতিও দেখালেন। দিল্লিতে প্রথম টি-২০ জিতে ভারত সফর শুরু করেছিল বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবালদের ছাড়া বাংলাদেশ দলটা চমকে দিয়েছিল ভারতকে। তারপর আর এই সফরে ভালো কিছুর দেখা পায়নি বাংলাদেশ। হারের বৃত্তেই রয়েছে টাইগাররা। ইন্দোরে প্রথম টেস্ট শেষ হয়ে গেছে তিন দিনে। ইডেনে গোলাপি বল, দিবারাতের প্রথম টেস্টে প্রথম ইনিংসেই ১০৬ রানে গুটিয়ে গেছে বাংলাদেশ। এমন হতশ্রী পারফরম্যান্সের পরও মুমিনুল হকরা পাশে পাচ্ছেন সৌরভ গাঙ্গুলিকে।

বিসিসিআইয়ের নতুন সভাপতি সাংবাদিকদের বলছেন, নির্ভরযোগ্য কয়েকজন ক্রিকেটার না থাকায় এই পারফরম্যান্স। গতকাল ইডেন গার্ডেনে সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘দেখ অনেকগুলো ক্রিকেটার নেই, চার পাঁচটা আসল ক্রিকেটার নেই তো।’