ট্রেনে জন্ম নেয়া – মানুষের জন্মের সময় কিংবা স্থান আগে থেকে কেউই বলতে পারে না। তবে ট্রেনে জন্ম নেয়া এক শিশু পেতে যাচ্ছে একটি বাড়তি সুবিধা। ট্রেনে জন্ম নেয়ায় রেল কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে ২৫ বছর পর্যন্ত কোনো ভাড়া ছাড়াই ট্রেনে ভ্রমণের সুযোগ দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে আয়ারল্যান্ডে।

সম্প্রতি দেশটিতে ট্রেনে যাত্রাপথে সন্তান প্রসব করেন এক নারী। ট্রেনে করে তিনি গালওয়ে শহর থেকে আয়ারল্যান্ডের রাজধানী ডাবলিনে যাচ্ছিলেন। পথেই এক কন্যা সন্তানের জন্ম দেন তিনি। আর এ কারণে আইরিশ রেল কর্তৃপক্ষ সদ্যোজাত শিশুটিকে পৃথিবীতে স্বাগত জানিয়ে এই পুরষ্কার ঘোষণা করে।

একইসঙ্গে রেল কর্তৃপক্ষ ঘোষণা দেয় যে, শিশুটির বয়স ২৫ বছর হওয়া পর্যন্ত সে বিনা টিকিটেই দেশের যেখানে খুশী সেখানে রেলভ্রমণ করতে পারবে। দেশটিতে এমনিতেই ৫ বছরের কম বয়সী শিশুরা বিনা ভাড়ায় রেল ভ্রমণ করতে পারে।আইরিশ রেল কর্তৃপক্ষের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সদ্যোজাত শিশুটিকে তারা পাঁচ বছরের সঙ্গে আরও ২০ বছর বিনা ভাড়ায় ভ্রমণের সুযোগ দিচ্ছেন। সেই সঙ্গে প্রসব পরবর্তী শিশুটির মায়ের চিকিৎসা সংক্রান্ত সব দেখভালও করছে রেল কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় গণমাধ্যমে সূত্রে জানা গেছে, ট্রেনে ভ্রমণ করার সময় হঠাৎ ওই নারীর যখন প্রসব বেদনা ওঠে। সৌভাগ্যবশত ট্রেনে ছিলেন একজন চিকিৎসক ও দুইজন নার্স।ডেভিন নামের ওই চিকিৎসক জানান, তিনি একটা সম্মেলনে যাচ্ছিলেন। হঠাৎ ট্রেন থেমে যাওয়ায় তিনি বেশ অবাক হয়েছিলেন। যাত্রীদের কাছে ট্রেন থামার কারণ জেনে তিনি দ্রুত ওই নারীকে সাহায্যের জন্য এগিয়ে যান।

ডা. ডেভিন বলেন, ‘আমি এগিয়ে গিয়ে দেখি ততক্ষণে দুইজন নার্স ওই গর্ভবতী নারীকে সাহায্য করছেন। অপর একজন নারী অ্যাম্বুলেন্সে খবর দিয়েছেন। আমি সাহায্য করতে চাই শুনে তারা বেশ খুশী হলেন।’ৎতিনি আরও বলেন, ‘শিশুটি ভুমিষ্ঠ হওয়ার পর কয়েক সেকেণ্ড পর্যন্ত বেশ চিন্তা হচ্ছিল। তারপর যখন সে চিৎকার করে কান্নাকাটি শুরু করল আমরা হাঁপ ছেড়ে বাঁচলাম।’