স্বাক্ষর জাল করে সোনালী ব্যাংক থেকে ৩৫ লাখ তুলতে গিয়ে ওসি ও এসআই আটক,শ্রীঘরে

ভুয়া স্বাক্ষর দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ৩৫ লাখ টাকার চেক তুলতে গিয়ে গ্রেফতার হয়েছেন ঢাকা রেঞ্জের এক পরিদর্শক (ওসি) ও উপ-পরিদর্শক (এসআই)।

বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) আসামিদের ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পুলিশ।মামলার শুনানিতে ভুয়া স্বাক্ষর করে টাকা উত্তোলনের চেষ্টা করার অপরাধ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ঢাকা মহানগর হাকিম মোরশেদ আল মামুন ভুইয়া।

শাস্তি পাওয়া এ দুই পুলিশ সদস্য হলেন- ঢাকা রেঞ্জের পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মীর আবুল কালাম আজাদ (৪৫) ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোস্তাফিজুর রহমান (৩৮)। ডিআইজি ঢাকা রেঞ্জ অফিসে ক্যাশ শাখায় কর্মরত ছিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, এ দুই পুলিশ কর্মকর্তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান হিসাবরক্ষক কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে ৩৫ লাখ টাকার চেক সংগ্রহ করে নিজেরাই জাল স্বাক্ষর করে সোনালী ব্যাংক কাকরাইল শাখায় জমা দেয়। চেকের স্বাক্ষরের সঙ্গে নমুনা স্বাক্ষরের মিল না থাকায় বাংলাদেশ ব্যাংক আমাকে ফোন করে।

এর পর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে মীর আবুল কালাম আজাদ ও মোস্তাফিজুর রহমানের নামে রমনা থানায় পেনাল কোডের ৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/৩৪ ধারায় মামলা করা হয় বলে জানান তিনি।স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রধান হিসাবরক্ষক কার্যালয়ের নীরিক্ষা ও হিসাব কর্মকর্তা শফিকুল ইসলাম বলেন, গত ২৪ জুলাই আসামিরা নিজেরাই ৩৫ লাখ টাকার চেকটি লিখে তাতে জাল স্বাক্ষর করে সোনালী ব্যাংক কাকরাইল শাখায় জমা দেয়।

ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশে ঢাকা ডিআইজি রেঞ্জ অফিসে কর্মরত পুলিশের সহায়তায় তাদের বিরুদ্ধে ২৮ আগস্ট রমনা থানায় মামলা করি আমি। সে মামলার শুনানিতে বিষয়টি বৃহস্পতিবার আদালতে প্রমাণিত হয়েছে। আদালত তাদের দুজনকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে।

Sharing is caring!

Comments are closed.