বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে যাচ্ছে ভারত বাংলাদেশ ফ্রেন্ডশিপ পাইপ লাইন। ভারত থেকে জ্বালানি তেল আমদানি করা হবে এই পাইপ লাইন দিয়ে। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ সালে ভিডিও কনফারেন্স এর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যৌথ ভাবে এই পাইপ লাইনের উদ্বোধন করেছিল।

এই পাইপ লাইন নির্মিত হলে জ্বালানি তেলের সরবরাহ বাড়ার পাশাপাশি তেলের দাম কমাতে পারে বলে আশা করছেন সংশ্লিস্টরা। পঞ্চগড় জেলা প্রশাসন সূত্র জানায়, ২২ ইঞ্চি ব্যাসের এই পাইপ লাইন নির্মিত হবে এবং দশ হাজার মেট্রিকটন জ্বালানি তেল সরবরাহ প্রতি বছরে। পাইপ লাইন নির্মাণের প্রক্রিয়া ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

জমি পঞ্চগড় জেলায় ৬৭ কিলোমিটার পেরিয়ে, ঠাকুরগাঁও অতিক্রম করে পাইপ লাইনটি দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর পৌছাব। এ পাইপ লাইনরে মোট দৈর্ঘ্য ১৩০ কিলোমিটার। এর মধ্যে ৫ কি.মি রয়েছে ভারতে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হতে সময় লাগবে তিন বছর। প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে এই অঞ্চলরে মানুষ জ্বালানি সমস্যা থেকে মুক্তি পাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করনে সংশ্লষ্টিরা।

জমি অধিগ্রহণের কাজ চলছে পঞ্চগড় জেলায়। সাড়ে চার হাজার প্লটের কাগজ পত্র সংগ্রহ করছে জেলা প্রশাসন জমি অধিগ্রহণের জন্য ৫২০ কোটি টাকা নির্মাণ ব্যয়ের মধ্যে ভারত ৩০৩ কোটি রুপি এবং বাংলাদশে পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের ২১৭ কোটি টাকা এই পাইপ নির্মাণে যৌথভাবে ব্যয় করবে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আব্দুল মান্নান জানান, ইন্দোবাংলা পাইপলাইনের কাজ শুরু হয়েছে।