২৪ ঘন্টার মধ্যে প্রবাসীদের কাছে ক্ষমা না চাইলে ছাগল নাইয়ার ওসির বিরুদ্ধে আন্দোলনে যাবো সিংহ পুরুষ তারুণ্যের অহংকার প্রবাসীদের প্রিয় নেতা ফরিদপুর ৪ আসনের এমপি জনাব মুজিবুর রহমান চৌধুরী(নিক্সন)। প্রবাসীদের বন্ধু নিক্সন ভাই দোয়া ও শুভ কামনা রইলো ভাই এর জন্য।

গতকাল ফেইসবুকে একটি ভিডিও ভাইরাল হয় যেখানে পুলিশ কর্মকর্তা ছাত্রীদের বলতেছেন বিদেশী ছেলেদের বিয়ে করবেনা কারন তারা তোমাদের কাজের মেয়ে হিসেবে ট্রিট করে বিয়ে করে চলে যায় আসবে তিন বছর পরে সশুর শাশুড়ি বিদেশী ছেলেদের সাথে মা বাবা বিয়ে দিতে চাইলে 999 নম্বরে কল করবা পুলিশ আর আগের পুলিশ নাই। জানা গেছে তিনি ছাগলনাইয়া থানার ওসি এম এম মুর্শেদ পিপিএম। এই বক্তব্যের ভিডিও ভাইরাল হবার পর সোশাল মিডিয়াতে চলছে প্রতিবাদের ঝড় ।

কিছু প্রবাসীর কমেন্ট হুবুহু তুলে ধরলাম…..

গাজী শফিকুল কমেন্ট করেছেন ..

এক মাসে যে কয় টাকা ইনকাম করি তোর বাপ ও কোন দিন এই টাকা বেতন পায় নাই – আর ঘুষ খাইলে অন্য কথা – প্রবাশিদের টাকা ১০০% হালাল টাকা – কিছু প্রবাসি আছে তারা ছাড়া ৯০% প্রবাসির টাকাই হালাল- তুই কোন চ্যাটের বাল তোকে বাড়ীর বাজার করার জন্য আর গরু রাখার জন্য রাখবো ২৫০০০ টাকা মাসে বেতন পাবি রাজি হলে যোগাযোগ করিস-:-

রাফসুন রহমান কমেন্ট করেছেন …

প্রাবাসি ছেলেদের বিয়ে করতে নিষেধ করলেন এই পুলিশ। এই বেক্কল টা হয়তো জানে না এই প্রবাসিদের ৬০ % টাকা দিয়ে বাংলাদেশ চলে এবং উনি যে প্রতিমাসে টাকা পায় তাও এই প্রবাসিদের টাকায়, লজ্জা থাকা উচিত এইরকম মানুষের। এখন সময় আছে এই প্রবাসিদের সম্মান করতে শিখেন।

হাবিব কমেন্ট করেছেন ….

ওনাকে রিমান্ডে নেওয়া হোক, উনি কি উনার যোগ্যতা দিয়ে চাকরিতে আসছেন। না ঘোষ দিয়ে চাকরিতে যোগ দিয়েছেন। এটা রিমান্ডে নিলেই বেরিয়ে আসবে।

মোহাম্মদ জলিল কমেন্ট করেছেন …

অত্যন্ত দুঃখজনক আমি বলব পুলিশ কর্মকর্তা উনি এই ভাবে না বললেও পারতেন। কারণ হলো প্রবাসীরা কিন্তু দুঃখের ব্যথা বেদনা এমনি কিন্তু তাদের জীবন শেষ। তারপরে আবার কিছুদিন পর পর একটা করে নতুন নতুন ব্যথা বিদেশীদেরকে দেওয়া কোন যুক্তিকতা নেই। একদিক দিয়ে বলে বিদেশিদের টাকা দেশের চাকা সচল থাকে। এবং ইন বিদেশীদেরকে দিয়ে আবার এমন আপত্তিকর কথা কাকে বলে যা মেনে নেওয়া যায় না। যাই হোক যারা প্রবাসীদের কে নিয়ে এ পর্যন্ত যত আপত্তিকর কথাবার্তা বলেছেন সকলের কাছে অনুরোধ করব আমরা আর ব্যাথা সইতে পারছি না দয়া করে আমাদেরকে আর নতুন করে কোন ব্যাথা দিবেন না সকলকে আল্লাহ হেদায়েত করুক।

সাইফুর রাজা চৌধুরী কমেন্ট করেছেন …

তোমরা প্রবাসী ছেলেদের বিয়ে করবে না কারণ ওরা সৎ উপায়ে চলে। ঘুষখোর, সুদখোর, ইয়াবাখোর, গণোরিয়ায় আক্রান্ত একটি দেশি ছেলেকে বিয়ে করে সুস্থ করে তুলো। দেশ সেবা হবে।

রায়হান কবির কমেন্ট করেছেন ….

বাংলাদেশে একমাত্র প্রবাসীর এই কোন প্রকার দাবি ছাড়া সম্পূর্ণ যৌতুক মুক্ত সুন্দর ভাবে বিয়ে করে কন্যাদায়গ্রস্ত পিতা দের উপর কোনরকম প্রেসার দেয় না যৌতুকের অভিশাপ থেকে বাংলাদেশকে মুক্ত করতে প্রবাসীদের ভূমিকা অপরিসীম তাই প্রবাসীদের অপমান জনক বক্তব্য প্রদানের জন্য ছাগলনাইয়ার ছাগলটাকে দ্রুত অপসারণ করা হোক এবং মিডিয়াতে এসে প্রবাসীদের কাছে ক্ষমা চাইতে বলা হোক।

শ্রীবাস বাদিয়া কমেন্ট করেছেন ….

উনার উপদেশ দেওয়া উচিৎ ছিলো বাল্য বিবাহ সম্পর্কে , কিন্তু তিনি সেটা করেন নাই, বলদা হলেই যা হয় আর কি ? অথবা তিনি কোনো প্রবাসীর কাছে চাদা চেয়েছেন নয়তবা কোনো প্রবাসীর স্ত্রীর সঙ্গে লুচ্চা লুচ্চামি করতে গিয়ে জুতা পিটা খেয়েছেন ? এখন আসেন উনার যোগ্যতা সম্পর্কে ! দুষ আসলে এই পুলিশের নায় দুষ তাহার যে এই অযোগ্য ব্যাক্তিকে এই পবিত্র জায়গায় স্থান করে দিয়েছে , এখন আমার মতে এই দুজনকেই জুতা পিটা করা উচিৎ , এখন সবচেয়ে বড় বিষয় হচ্ছে একজন প্রশাসনের কাছ থেকে এই রকম বক্তব্য যা নিতি বিরুদ্ধে , আশা করছি অতিসত্বর উনা কে সাসপেন্ড করে সঠিক বিচারের আওতায় আনা ???

মুরাদ পারভেজ কমেন্ট করেছেন ….

আপনার গায়ের পোশাকের টাকাটা কোথায় থেকে আসে জানেন? #প্রবাসিদের রেমিটেন্সের টাকা থেকে। আপনার পরিবারের ভরণ পোষনের জন্য যে বেতন টা পান সেই টাকাটা কোথায় থেকে আসে জানেন? #প্রবাসিদের রেমিটেন্সের টাকা থেকে। আপনি চলাফেরার জন্য সরকার থেকে যে গাড়িটা পেয়েছেন সেই গাড়িটা কেনা হয়েছে কোন টাকা দিয়ে জানেন #প্রবাসিদের রেমিটেন্সের টাকা দিয়ে। আপনি ভাব নিয়ে যে রাস্তা দিয়ে গাড়ি নিয়ে চলেন সেই রাস্তাটা বানানো হয়েছে কার টাকা দিয়ে জানেন? #প্রবাসিদের রেমিটেন্সের টাকা দিয়ে। তাহলে আপনি যাদের টাকায় খান,যাদের টাকায় পরেন, যাদের টাকায় ভাব নিয়ে চলাফেরা করেন তাদের সম্পর্কে এইরকম একটা কথা বলতে কি বুকটা একবারও কাপলোনা?? মনে রাখবেন প্রবাসিরা যদি একমাস টাকা পাঠনো বন্ধ করে দেয় আপনার মত পুলিশদের পরিবার চলবে না। আর এগুলো আপনি বুঝবেনই বা কি করে আপনি তো সু শিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারেন নাই, তাই বুঝার জ্ঞানটাও অর্জন করতে পারেন নাই। যেটা আপনার কথার মাধ্যমে ফুটে উঠেছে।