সৌদি ফেরত স্ত্রী সহ একই বিছানায় শুধু স্বামী এসিডদগ্ধ

তালা উপজেলার পল্লীতে নিজ ঘরে ঘুমন্ত অবস্থায় আল আমিন গাজী (৩২) নামে এক যুবক এসিডদগ্ধ হয়েছে। ১১ আগষ্ট গভীর রাতে তালা উপজেলার চর কানাইদিয়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে।

দগ্ধ আমিন গাজী ঐ গ্রামের আব্দুস সাত্তার গাজীর ছেলে। ঐ রাতেই তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাতক্ষীরা ও পরে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় তার স্ত্রী আশা ওরফে হাফসা বেগম (২৪) গ্রেফতার করেছে পুলিশ

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, আলামিন গাজী পেশায় একজন রং মিস্ত্রী, সে দীর্ঘ দিন যাবৎ ঢাকায় অবস্থান করে আসছিল। তার স্ত্রী আশা ওরফে হাফসা বেগম ৩ বছর পূর্বে সৌদি যায় গৃহকর্মী কাজ নিয়ে। গত ডিসেম্বরের দিকে আয়েশা দেশে ফিরে স্বামীর সাথে একমাত্র পুত্র মুজাহিদ (৮) সহ ঢাকাতেই অবস্থান করে আসছিলেন।

ঈদ উপলক্ষ্যে গত বুধবার তারা চর কানাইদিয়ার গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে আসে। শনিবার দিবাগত রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে। ঐদিন রাত ১ টার দিকে এসিড সন্ত্রাসের শিকার হয়। তবে ঘটনার সময় ঘরের ভেতর থেকে তালাবদ্ধ ছিল এবং জানালা দরজা সবই বন্ধ ছিল বলে এলাকাবাসী ও পারিবারের সদস্যরা জানায়।

স্বস্ত্রীক একই বিছানায় ঘুমিয়ে থাকলেও শুধূ স্বামী এসিড দগ্ধ হওয়ার বিষয়টি রীতিমত প্রশ্নবিদ্ধ করেছে এলাকাবাসীর পাশাপাশি খোদ পরিবারের সদস্যদর। আালামিনের স্বজনরা জানায়, তার মুখ ও বুকে মারাত্মকভাবে এসিডদগ্ধ হয়েছে । ঘটনার পর পুলিশ তার স্ত্রী আশাকে গ্রেফতার করে জেল-হাজতে প্রেরণ করেছে।তালা থানা অফিসার ইনচার্জ মেহেদী রাসেল জানান, থানায় মামলা হয়েছে, যার নং-১, তারিখ- ১১-০৮-২০১৯। তার স্ত্রীকে আটক করে আদালতে সোপর্দ পূর্বক রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছে।

 

 

Sharing is caring!

Comments are closed.