বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে গ’লায় ফাঁ’স লাগানো বি’বস্ত্র অবস্থায় উদ্ধা’র হওয়া মাদ্রাসাছা’ত্রী হিরা আক্তারের (১২) হ’ত্যা’র ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ তিন জনকে আ’টক করেছে। আট’ককৃতরা হল- ফুলহাতা গ্রামের সিদ্দিক সিকদারের ছেলে ওসমান সিকদার (২৪), পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামের আলম মৃধার ছেলে শাহিন (১৯) ও সোবাহান মৃধার ছেলে রফিকুল মৃধা (১৯)।

এ বিষয়ে মোরেলগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রিয়াজুল ইসলাম বলেন, রাতেই বাগেরহাট পিবিআই’র একটি তদন্ত এক্সপার্ট টিম নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। বিভিন্ন ধরণের আ’লামত সংগ্রহ করা হয়েছে। মোরেলগঞ্জ থানা ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম জানান, মৃ’তদে’হের বিভিন্ন স্থানে লিপস্টিক মেখে রেখে ছিল তার খু’নিরা।

গ’লায় গামছা লাগানো। সু’রতহাল রিপোর্টে এসব আলামত আমরা পেয়েছি। আজ বুধবার বেলা ১০টার দিকে লা’শের পো’স্টমর্টেম করাতে বাগেরহাট সদর হাসপাতাল ম’র্গে পাঠানো হয়েছে। ওসি আরো জানান, পো’স্টমর্টেম রিপোর্ট পেলেই মৃ’ত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে পশ্চিম বহরবুনিয়া গ্রামের গাউছ শেখের নিজ বসতঘরে বি’বস্ত্র অবস্থায় ঝু’লন্ত লা’শ পাওয়া যায় তার মেয়ে হিরা আক্তারের। সে স্থানীয় ছাপড়াখালী গাজীরঘাট দাখিল মাদরাসার ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রী। তার পিতা গাউছ শেখও একই মাদরাসার নৈশ প্রহরী। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান ওসি কেএম আজিজুল ইসলাম।