হবিগঞ্জে চা শ্রমিককে দিনভর বেঁধে রাখা হয় যে কারনে

 

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার নালুয়া চা বাগানে মা-বাবাকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা করায় টেটে ঝড়া (৩০) নামে এক মাদকাসক্ত চা শ্রমিকে দিনভর ম্যানেজার বাংলোতে বেঁধে রাখা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে তাকে চুনারুঘাট থানায় সোপর্দ করা হয়। পরে চিকিৎসার কথা বলে পুলিশের কাছ থেকে তাকে ছাড়িয়ে এনেছেন পরিবারের লোকজন।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মাদকাসক্ত টেট ঝড়া শুক্রবার সকালে তার পিতা অতুল ঝড়া এবং মায়ের ওপর ধারালো দা হাতে নিয়ে আক্রামণ চালান। প্রাণ রক্ষা পেতে মা-বাবা দৌড়াতে থাকলে তিনিও দা হাতে নিয়ে পেছন পেছন দৌড়াতে থাকেন। এ সময় বাগান ব্যবস্থাপকসহ স্থানীয় লোকজন তাকে বাংলোর পিলারের সঙ্গে হাত বেঁধে রেখে দেন। বিকেলে তাকে চুনারুঘাট থানা পুলিশে সোপর্দ করা হয়। পরে সন্ধ্যায় মাদকাসক্ত এই যুবকের চিকিৎসার কথা বলে থানা থেকে ছাড়িয়ে এনেছেন পরিবারের লোকজন।

শুরুতে বেঁধে রাখার বিষয়টি অস্বীকার করলেও পরে নালুয়া চা বাগানের ব্যবস্থাপক জহিরুল ইসলাম জানান, টেটঝড়া মাদকাসক্ত। নিজের বাবা-মাকে হত্যার চেষ্টা চালালের তাকে বেঁধে রাখা হয়। পরবর্তীতে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। চুনারুঘাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ নাজমুল হোসেন জানান, স্থানীয়রা টেটে ঝড়াকে থানায় নিয়ে আসেন। কিন্তু পরবর্তীতে পরিবারের লোকজন তাকে দেখে রাখবেন এবং চিকিৎসা করাবেন বলে থানা থেকে ছাড়িয়ে নিয়ে যান।

 

 

Sharing is caring!

Comments are closed.